ব্যাকগ্রাউন্ড

ফেইসবুকে!

​রুবাঈয়াত- পর্ব (এক)

রুবাঈয়াত- পর্ব (এক)
রুকুন-উদ-দৌলা সোহেল


(০১)
আঁড় চোখে ক্যান চাও ষোড়শী ইচ্ছে মনে কি আছে?
বলবে কিছু? সই হবে গো? বাঁধন ভেঙ্গে নয় কাছে,
রুবাইয়াতে সোহেল পড়ে মন কি তোমার বাঁধ ভাঙ্গা?
নিন্দুকেরা নয়তো ভালো কি যেনো ফের কয় পাছে!!

(০২)
চাহনীতে কলজে ছিড়ো ঠোঁট বাঁকিয়ে কথা কও
ছল ছাতুরি অনেক করো সত্যি সখি কারো নও
সাকি হয়ে সুরা ঢালো নূপুর পাঁয়ে নাচ ঘরে,
জীবনটাকে পাল্টে এবার সত্যি করে একার হও।।

(০৩)
মারবে ছোবল তাই বলেতো তুলছে ফনা ঠোঁট দুটি,
বিষ ছড়াবে অঙ্গ জুড়ে হৃদয় দোলায় খুনসুটি,
পদ্মপুকুর দ্বার খুলেছে ষড় হৃষীক উগ্রতে
পঞ্চফনা দেবে হানা আজ বিষেতে নীল জুটি।।

(০৪)
বদন গাছে পক্ক ডালিম পেকে আছে রস ভরে,
কোন্ মালিতে করছে আবাদ উঠবি যে তুই কার ঘরে?
নাঙ্গল ফলায় সান দিয়েছে আবাদ হবে তোর জমি,
দেখিসরে তোর সোনার জমিন নষ্ট নাহয় জং ধরে।

(০৫)
পদ্ম এখন ভাসছে জলে চাঁদের হাসি নীলোৎপল,
চেনা যে ভাই কঠিন এখন কে যে নায়ক কে'বা খল,
চোখ আছে তাই থাকবে চেয়ে বলতে গেলে কাটবে ধড়,
যাক'না ভেসে কি হয়েছে তাতে কি আর কমবে জল!!!?


(০৬)
ফুল বাগানে সুবাস নিতে হাজার ফুলের মাঝখানে,
হলদে রঙের পোষাক পড়া মুচকি হাসি ঠোঁট পানে।
চুল গুলো যে পরিপাটি পুতুল যেনো সত্যি এক
হৃদের কষ্ট কেমন করে লুকিয়ে রাখো কোন খানে???
(প্রিয় শেখ পুতুলকে নিবেদিত)

(০৭)
দু'হাত তুলে মাঙছি দোয়া ক্ষমা করো প্রভু দয়াময়,
মনের মাঝে শক্তি দিও সত্য বলতে নাহয় যেনো ভয়।
পাছে লোকে যে যাই বলুক করুক যতো হিংসা'ই
আমায় শুধু শক্তি দিও আমার হৃদয় যেনো সয়।।
(প্রিয় শেখ পুতুলকে নিবেদিত)

(০৮)
টুক টুকে লাল শাড়ীতে আজ লাগছে তোমায় লাল পরি
টোল পড়া সেই কপোল দেখি প্রভুর গড়া অপ্সরী
ঠোঁটের কোনের হাসিতে যে পাগল পারা এই ভুবন
ইচ্ছে করে আগের মতো আদর-স্নেহে হাত ধরি।।

(০৯)
চাঁদ হাসে ঐ দূর আকাশে ঢালবে সুরা কই সাকি?
জ্যোৎস্নারা সব জ্বালছে আলো বুকের বেদন কই রাখি?
এমন রাতে সঙ্গী ছাড়া জ্যোৎস্না দেখা হয় কি আর?
সুখ গুলো সব সাথে নিয়ে উড়াল দিল সুখ পাখি।।

(১০)
ভাবনা গুলো ছলের বসে যেই ঠেলেছো অগ্নিতে,
খাঁচায় বন্দি হৃদয়টা আজ দেহ দিলে লগ্নিতে,
বেশ আছোতো দেখে বুঝি রঙ মেখে তাই সঙ সাজো,
লজ্জা তোমায় দেয়না বাঁধা রাত দুপুরে নগ্নিতে।।

(১১)
চাহনিতে মাদকতা কাছে ডাকা ছল ছিলো,
ভালবাসা উদারতা আজকে সখি কে নিলো?
ছল করা খুব রপ্ত তোমার খুব সহজে তা পারো
বলবে কি সই এমন ছলের দীক্ষা তোমায় কে দিলো??

(১২)
চাইলে শুধু দিবে অনেক কিন্তু আমি চাইবো'না,
তোমার সুরে ঠোঁট মিলিয়ে ছলের গান আর গাইবো'না,
উজান গাঙ্গও সাঁতরে যাবো করিনা'যে ডুবার ভয়,
পদ্মদিঘী শেওলা ঢাকা সেই দিঘীতে নাইবো'না।।

(১৩)
বিশাল সাগর গভীর যে খুব ঠাঁই কি পাবে এই তরী?
ডুবে গেলে রাত পোহাবে তাই'তো বাই'তে ভয় করি!
জগ্ধ তোমার হলো অনেক আছে কি আর বাকী কী?
জলের সাথে নিখুঁত খেলা খেলছো তুমি জল পরী।।

(১৪)
পদ্মপুকুর পাড়ের মাঝে এক যে ডালিম গাছ আছে,
পক্ক ডালিম রসে ভরা লোক জমেছে সব কাছে,
গাছে মাত্র ডালিম দু'টি হাজার লোকের মাঝ খানে
গাছ কি তবে উপড়ে নেবে এমন ভয়'তো মন পাছে!!!

(১৫)
আর হলো কই জ্যোৎস্না দেখা দু'জন মিলে এক সাথে?
নিত্য যে সই ব্যাস্ত থাকো নূপুর পায়ে মাঝ রাতে,
নিজের মনে প্রশ্ন করো আগের চেয়ে বেশ আছো?
ভাবনারা সব বাসা বাঁধে এখন যে সই কোন জাতে!!!

ছবি
সেকশনঃ সাধারণ পোস্ট
লিখেছেনঃ রুকুন-উদ-দৌলা সোহেল তারিখঃ 25/12/2023
সর্বমোট 179 বার পঠিত
ফেসবুকের মাধ্যমে কমেন্ট করুণ

সার্চ

সর্বোচ্চ মন্তব্যকৃত

এই তালিকায় একজন লেখকের সর্বোচ্চ ২ টি ও গত ৩ মাসের লেখা দেখানো হয়েছে। সব সময়ের সেরাগুলো দেখার জন্য এখানে ক্লিক করুন

সর্বোচ্চ পঠিত

এই তালিকায় একজন লেখকের সর্বোচ্চ ২ টি ও গত ৩ মাসের লেখা দেখানো হয়েছে। সব সময়ের সেরাগুলো দেখার জন্য এখানে ক্লিক করুন