ব্যাকগ্রাউন্ড

মুক্তচিন্তার বিশ্ব

আপনার পছন্দের যে কোন কিছু সহব্লগারদের সাথে শেয়ার করতে ও শেয়ার কৃত বিষয় জানতে এখানে ক্লিক করুণ

ফেইসবুকে!

ভাত রান্নার সহজ রেসিপি

ভাত রান্নার সহজ রেসিপি

 

উৎসর্গঃ দুরন্ত

 

মাছে-ভাতে বাঙালি। কয়জন বাঙালি ভাত রান্না করতে পারে! যারা এখনো ভাত রান্না করা শিখেননি (বিশেষ করে দুরন্ত) তাঁদের জন্য এ পোস্ট।

 

যে সব  উপকরণ লাগবে।

১। একটি চুলা (গ্যাস/ লাকড়ি/ কয়লা যেকোনো চুলা হলেই চলবে, যাদের রাইস কুকার নেই)

২। ১ পোয়া সিদ্ধ চাল

৩। ১.৫ লিটার পানি

৪। ভাত রান্না করার একটি পাতিল

৫। ভাত সিদ্ধ হল কিনা দেখার জন্য একটি চামচ, অথবা কাঠের প্রয়োজনীয় জিনিস( নাম জানি না বলে জিনিসটার নাম দেয়া হয় নি)

৬। একটি পাতিলের ঢাকনা

৮। মাড় সরানোর জন্য একটি মাটির সানকি অথবা এলিমিনিয়ামের পাতিল

 

১ পোয়া সিদ্ধ চাল প্রথমে ভালো করে ধুয়ে নিন। ধোয়া চালগুলো দেড় লিটার পানিসহ ভাত রান্না করার পাতিলের ভেতর রেখে চুলার উপর বসিয়ে দিন। আস্তে করে চুলায় অগ্নিসংযোগ করুন। মাঝারি তাপে আস্তে করে চাল এবং পানি ফুটতে দিন। বিশ মিনিট নিশ্চিন্ত মনে নিউজ চ্যানেল কিংবা বিনোদন চ্যানেল দেখতে থাকুন। ব্লগার হলে ব্লগিং করুন। ২০ মিনিট পর একটি চামচ দিয়ে কয়েকটি চাল সিদ্ধ হয়েছে কিনা দেখুন সাবধানে যেন হাতে তাপ না লাগে। আপনি যত নরম কিংবা শক্ত পছন্দ করেন অনুমান করে চুলা বন্ধ করে দিন। একটি পাতিল নামানোর নেকড়া দিয়ে সাবধানে পাতিলটি ধরুন, ধরার আগে উপরে একটি ঢাকনা দিন। ঢাকনাটি মাটির হলে ভালো। এতে করে আস্তে আস্তে উত্তপ্ত হবে। মাড় ফেলার সানকীতে খুব কায়দা করে ভাতের পাতিল ঢাকনা সহ এমনভাবে রাখুন যেন মাড়গুলো সানকীতে পড়ে এবং ভাতগুলো পাতিলে থেকে যায়। ৫ মিনিট পরে পাতিল টা পরিষ্কার স্থানে রেখে ঢাকনাটা আস্তে করে তুলুন।


 

ওয়াও!! একদম ঝকঝকে ভাত। এবার আপনার বন্ধুকে বলুন তাড়াতাড়ি তরকারি রান্না করতে। আপনি ততোক্ষণ আরামসে টিভি দেখুন কিংবা ব্লগিং করুন, মাঝে মাঝে বন্ধুকে সাহায্য করুন হলুদ মরিচ এগিয়ে দিয়ে। বন্ধুকে বুঝাতে থাকুন ভাতের মাড় সরানো পৃথিবীর অন্যতম কঠিন কাজ। তরকারি রান্না হলে ভাত দিয়ে পরিবেশন করুন।

এটা নতুন কোন আবিষ্কার নয়। যুগ যুগ ধরে সবাইকে এভাবেই ভাত রান্না করতে দেখেছি।

ছবি
সেকশনঃ সাধারণ পোস্ট
লিখেছেনঃ জটিল বাক্য তারিখঃ 04/06/2013 08:27 PM
সর্বমোট 21539 বার পঠিত
ফেসবুকের মাধ্যমে কমেন্ট করুণ

সার্চ