ব্যাকগ্রাউন্ড

ফেইসবুকে!

আমি "বঙ্গ সাধু" আমার কোন পাপ নেই

মাস্টার্স অব সোশ্যাল সাইন্স,
অর্থ মুক্তির দিবাস্বপ্নে বিভোর হয়ে সাদা খাতায় ভরাট করেছি পয়েন্ট অব ইনফ্লেকশন।
হক বাড়ীর পান্তা ভাতের ঘোলাজলে নিজের প্রতিচ্ছবি খুঁজতে গিয়ে খুঁজে পাইনি নিজের অস্তিত্ব, শুধু পেলাম একটা অথৈ সাগর আর নোনাজল। 
দারিদ্রতার জাবেদা কষে স্বপ্নের খতিয়ানে লিপিবদ্ধ করে দেখেছি ভুল করে বসেছি রেওয়ামিল।
নগদান বইয়ের নগদের অসহজলভ্যতায় বানের জলে ভাসিয়ে দিয়েছি প্রেম।
জীবনের চুড়ান্ত হিসাব কষতে গিয়ে পথ ভুলে না চাইতেও সঙ্গী হলো অর্থনীতি। 
এবার কিছু একটা হবে বস-
আমি "বঙ্গ সাধু"
বাস্তব জীবনে গ্যাঁড়াকলের ঘানি টানতে টানতে পাঁচফিট সাড়ে এগারো।
উচ্চতা দীর্ঘকায় হলেও বিস্ময়কর-
নিজের জীবনের কোন দীর্ঘ উদ্দেশ্যে নেই।
কোন পথে চলি সেটা জানার বাধ্যবাধকতাও নেই, 
শুধু জানি দুইমুঠো ভাত খেয়ে শুততে হবে।
ইচ্ছের বারান্দায় কাঁটাতার ঝুলিয়ে চিবিয়ে খেয়েছি শীলাদের প্রেম।
মুন্নীর হাতে হাত রেখে মেদহীন পেটে হাত বুলিয়ে মেপেছি কোমরের দৈর্ঘ্য।
দাঁড়িয়ে দাঁড়িয়ে উত্তেজিত বাড়া ঠেকিয়ে ঠোঁটে ঠোঁট চেপে চুমু দিয়েছি দীর্ঘকায়।
ঘৃণার টক্সিন মিশিয়ে কৌশলে মুখে ঢুকিয়ে দেই -
স্ট্রবেরী লজেন্স।
আয়োজনের ঘাটতি না থাকলেও যৌবনের তাড়নায় অবিশ্বাসী হয় চোখ, বিছানায় ফেলে নরম মাংসে হাত বুলায় জারজ।
আমি "বঙ্গ সাধু" দেখতে পাপীর মত তবু সঙ্গম করিনা।
পারতাম, বলতে ভালবাসি-
বঙ্গ সাধু একজন পুরুষ ধর্মে মুসলিম, কৃষ্ণ বর্ণ গায়ের চামড়া শ্যামলা, মুখমণ্ডলের বিশ্রি আকার,
সিংহ রাশির অপদার্থ জাতক।
সিংহের মত গর্জন করা সাজে ভালবাসি মুখে বলা সাজেনা তাই আমার ওজন পচাশি কেজি।
আমি "বঙ্গ সাধু"
অযোগ্য, বাজে, অশ্লীল আর হারামজাদা তবে জারজ নই।
বিছানায় ছটফট করে বুড়ো বাপ,
পোঁকায় খেয়েছে দাঁত, অভাবে খেয়েছে শরীর আর নীতি খেয়েছে যৌবন।
আমি শুধু "বঙ্গ সাধু" নই বাংলার বাঙ্গালী সাধু, আশ্চর্যের বিষয় আমার কোন পাপ নেই!

ছবি
সেকশনঃ কবিতা
লিখেছেনঃ নিচু তলাৱ উকিল তারিখঃ 04/04/2019 10:51 AM
সর্বমোট 263 বার পঠিত
ফেসবুকের মাধ্যমে কমেন্ট করুণ

সার্চ