ব্যাকগ্রাউন্ড

ফেইসবুকে!

মানসিক স্বাস্থ্য সুনিশ্চিত করুন

অতিরিক্ত মানুষিক চাপ, অনাকাঙ্ক্ষিত মৃত্যুর কারন হতে পারে। আমরা সেটা অস্বীকার করতে পারিনা। মানসিক চাপ একটা মারাত্মক রোগ। এই রোগের প্রকোপ প্রতিনিয়ত বৃদ্ধি পাচ্ছে। প্রতিবছর বিশ্বজুড়ে প্রায় লাখো মানুষ এই রোগে আক্রান্ত হয়ে আত্নহত্যার পথ বেছে নিচ্ছে। অতিরিক্ত মানসিক চাপের ফলে দেখা দিচ্ছে মানসিক রোগ। বর্তমানে মানসিক রোগে আক্রান্ত হয়ে শুধুমাত্র ব্যক্তিক নয়, বরং সামাজিক, রাজনৈতিক, রাষ্ট্রীয় ও অর্থনৈতিক ক্ষতি বৃদ্ধি পাচ্ছে।

মানুষ বিভিন্নভাবে মানসিক রোগে আক্রান্ত হয়ে থাকে। পারিবারিক, সামাজিক ও কর্মক্ষেত্রেও এধরনের চাপ থাকতে পারে। অফিসে বসের অতিরিক্ত কাজ চাপিয়ে দেওয়া, প্রতিটি কাজের ক্ষেত্রে ভুল ধরলে একজন কর্মজীবী মানুষ কিছুটা বাড়তি মানসিক চাপে থাকে। যেটার প্রভাব পড়ে তার পারিবারিক জীবনে। সংসারে স্বামী স্ত্রীর অমিল, পারিবারিক বোঝাপড়ায় অসম্মতি লেগেই থাকে এই মানসিক চাপের কারনে। এতে করে ঐ কর্মজীবী ব্যক্তির পারিবারিক সুখ শান্তি বিনষ্ট হয়ে যায়। ক্ষতির মুখে পড়ে তার পরিবার এবং সন্তানরা।

রাজনৈতিক ক্ষেত্রেও অতিরিক্ত চাপের ফলে মানসিক রোগ বৃদ্ধি পেতে পারে। হাইকমান্ডের কাজের অতিরিক্ত চাপের ফলে নিচের সারির নেতা-কর্মীদের মাঝে মানসিক চাপ দেখা দেয়। এতেকরে মানসিক রোগ বৃদ্ধি পায়। অতিরিক্ত মানসিক চাপ শুধুমাত্র পারিবারিক ক্ষেত্রেই নয় বরং একটি দেশের অর্থনীতিকেও প্রভাবিত করে। দেশের বেশিরভাগ কর্মজীবী মানুষ যদি মানসিক রোগে ভোগে তাহলে কোম্পানি বা ব্যবসায় প্রতিষ্ঠানের কাঙ্ক্ষিত লক্ষ অর্জন অসম্ভব হয়ে পড়ে। ফলে প্রতিষ্ঠানের অর্থনৈতিক ক্ষতিসাধন হয়। এই ক্ষতি দেশের অর্থনীতিকেও ব্যাপকভাবে প্রভাবিত করে। বাৎসরিক ভাবে এই ক্ষতির হিসাব করলে সেটা হাজারকোটি টাকার বেশি হয়ে দাঁড়াবে।

অন্যান্য রোগের মত মানসিক চাপ বা মানসিক রোগও একটি মারাত্মক রোগ। এর ফলে মানুষের শারীরিক, মানসিক, পারিবারিক ও সামাজিক ক্ষতিসাধন হয়ে থাকে। সুতরাং এটাকে স্বাভাবিক ভাবে নেওয়া ঠিক নয়। বাংলাদেশে পর্যাপ্ত পরিমানে মানসিক স্বাস্থ্য ইন্সটিটিউশন রয়েছে। যারা অতিরিক্ত মানসিক চাপে বা মানসিক রোগে ভুগছেন তারা ভয় বা লজা-সংকোচ ব্যতিরেকে খুব দ্রুত চিকিৎসকের পরামর্শ গ্রহণ করুন। অবহেলার কারনে আপনার মূল্যবান জীবন মৃত্যুর মুখে ধাবিত হতে পারে। তাই অবহেলা নয়, চিকিৎসার মাধ্যমে মানসিক রোগ থেকে মুক্ত হয়ে মানসিক স্বাস্থ্য সুনিশ্চিত করুন এবং সুখী, সমৃদ্ধ জীবন প্রতিষ্ঠা করুন।

ছবি
সেকশনঃ সাম্প্রতিক বিষয়
লিখেছেনঃ ইমরান খান রাজ তারিখঃ 12/10/2017 11:08 PM
সর্বমোট 1624 বার পঠিত
ফেসবুকের মাধ্যমে কমেন্ট করুণ

সার্চ