ব্যাকগ্রাউন্ড

মুক্তচিন্তার বিশ্ব

আপনার পছন্দের যে কোন কিছু সহব্লগারদের সাথে শেয়ার করতে ও শেয়ার কৃত বিষয় জানতে এখানে ক্লিক করুণ

ফেইসবুকে!

ঘরের লক্ষ্মী পায়ে ঠেলা, অলক্ষ্মীকে বুকে ধরা!

স্বাচিপ মানে স্বাধীনতা চিকিৎসক পরিষদ। এটি আওয়ামীপন্থী চিকিৎসকদের পেশাজীবী সংগঠন। আমি প্রচলিত অর্থের কোন সংগঠনের সাথেই যুক্ত নই এবং এমন কোন ব্যানারের কোন রাজনীতিতেও সক্রিয় নই। চেতনাগত কারণেই একবার মনে হয়েছিল স্বাচিপের সদস্য হই। সে বেশ কয়েক বছর আগের কথা, সাত/আট বছর তো হবে। তখন বলা হয়েছিল, স্বাচিপ এখন কোন সদস্যপদ দিচ্ছে না। কেন দিচ্ছে না তার উত্তরে জেনেছিলাম, অনেক আওয়ামী-বিরোধী চিকিৎসক স্বাচিপের সদস্যপদ নিয়ে স্যাপোটাজ করতে পারে সেজন্য।

এই ইমম্যাচিউর উত্তরে আমি মনে মনে খুব হতাশ ও বিরক্ত হয়েও বলেছিলাম, যেকোনো সংগঠনের সদস্য সংগ্রহ ও সক্রিয়করণ কার্যক্রম একটি অবিরত প্রক্রিয়া। স্যাপোটাজ হতে পারে সে সম্ভাবনাকে বিবেচনায় রেখে প্রক্রিয়ার সাথে বাড়তি সতর্কতা যোগ হতে পারে কিন্তু প্রক্রিয়া তো বন্ধ থাকতে পারে না!

ডাক্তাররা স্ব স্ব মেডিকেল কলেজ থেকে পাস করা সকল ডাক্তারের রাজনৈতিক কুষ্ঠি-ঠিকুজী জানে। না জানলেও তা খুব সহজে বের করতে পারে, তাহলে এখানে স্যাপোটাজের সুযোগ কোথায়? আমার তো মনে হয় এই স্যাপোটাজ রোধ করার জন্যই বরং পরিচ্ছন্ন মানুষগুলোকে খুঁজে খুঁজে সদস্য বানানো দরকার।

আমি কোন পন্থি রাজনীতি ঘেঁষা মানুষ সেটি একটি বিদিত বিষয়। তারপরেও কনফিউশন থাকলে তা আমার মেডিকেলের যে কাউকে জিজ্ঞেস করেই নিশ্চিত হওয়া যায়। এটি সবার ক্ষেত্রেই প্রযোজ্য। কিন্তু একজন যেচে সদস্য হতে আসার পরেও তাকে সদস্য করা যাবে না, এটা একটা সংগঠনের কী ধরনের আত্মঘাতী নীতি!
আমি আর কখনও স্বাচিপের কারওসাথে যোগাযোগ করিনি, আমার সদস্য হওয়াও হয়নি। এ ধরনের ব্যক্তি-সুবিধা-সন্ধানী, আত্মতুষ্টিমূলক সংগঠনের সদস্য সংগ্রহ অভিযান কার্যক্রম না থাকায় আমাকেও কেউ খুঁজে বের করেনি।

স্বাচিপ বিষয়ক এ অভিজ্ঞতাটি এখন বলার প্রেক্ষাপট ভিন্ন। দেশের বিভিন্ন স্থানে দেখছি জামাত-শিবিরের লোকজন একলাফে আওয়ামী লীগ এবং তার অঙ্গ ও সমমনা সংগঠনের সভাপতি, সেক্রেটারিসহ নানান পোস্ট পজিশন পেয়ে যাচ্ছে। কিভাবে পাচ্ছে? আমাদের মানসিকতার লোকজন আট বছর ধরে এ জাতীয় সংগঠনের সদস্যপদ পায়না বলেই কী? চেতনা নেই, চেতনার দোকান ও চেতনার ফেরিওয়ালা আছে। বিক্রি হচ্ছে চেতনা।

ছবি
সেকশনঃ সাধারণ পোস্ট
লিখেছেনঃ যুক্তিযুক্ত তারিখঃ 31/01/2017 05:41 PM
সর্বমোট 1630 বার পঠিত
ফেসবুকের মাধ্যমে কমেন্ট করুণ

সার্চ